Contact us to get featured in Entrepreneurs Magazine TSM | Call: 01684722205

অদম্য ইচ্ছাশক্তির ফলে সব বাধা-বিপক্তি কাটিয়ে আজ একজন সফল উদ‍্যোক্তা আনজুম জামান।

আমি আনজুম জামান।পিতাঃ আজাহার আলী রাজা।মাতাঃ শরিফা বেগম।
স্বামীঃ সার্জেন্ট মনিরুজ্জামান মনির।

তিন ভাই বোনের মধ্যে আমি সবার ছোট।দেশের বাড়ি রংপুর জেলার শ‍্যামপুরে।হাজবেন্ডের চাকুরী সুবাদে বর্তমানে ঢাকায় থাকি।আমি একজন ফ‍্যাশন ডিজাইনার এবং দেশী পণ্যের ই-কমার্স উদ‍্যোক্তা।আমার উদ‍্যোগের নাম দিয়েছি মেয়ের নামে ‘Mannota Babies fashion’ কারন সে আমার অনুপ্রেরণা।আমার পেজটি খোলা হয় ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সালে।এরপর ১৬ জুন ২০২০ সালে উইয়ে জয়েন করি।আমার ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিলো নিজে কিছু করবো।

আমি এমন কিছু করবো যার ফলে নিজের পরিচয়ে পরিচিত হবো এবং নিজের পাশাপাপাশি অন‍্যদের কাজের সুযোগ সৃষ্টি করবো।এই স্বপ্ন দেখতে দেখতে এইচএসসি পরিক্ষা শেষে বিয়ে হয়ে যায়।তখন আমার স্বপ্নগুলো পূরণ করা কঠিন হয়ে যায়।পর৷ গ্রাজুয়েশন শেষ করি।পড়ালেখার পাশাপাশি ডিজাইনিংয়ের উপর প্রচন্ড আগ্রহ থাকায় এ পেশায় পা রাখি।বিজনেস শুরুর আর একটি বিশেষ কারন হলো আমার মেয়ে।আমি যখন মেয়ের মা হলাম তখন আমার মাথায় আসে যে আমি মেয়ে হয়ে জীবনে যখন কিছু করতে চেয়েছি অনেক রকম বাধা ফেস করেছি, সেটা যেন আমার মেয়েকে করতে না হয়।আর সেজন্য আমাকে এখনি কিছু করতে হবে যেন আমার মেয়ে স্বাভাবিকভাবে সামনে এগিয়ে যেতে পারে।

আর একটি গুরুত্বপূর্ণ কারন শেয়ার না করলেই নয় তা হলো আমার পরিবার।বাবা-মা হিসেবে তারা আমাকে নিয়ে কত স্বপ্ন দেখেছে আর তাই আমারো সন্তান হিসেবে দায়িত্ব আছে তাদের স্বপ্ন পূরণ করার। তবেই তো আমার সন্তান আমার স্বপ্ন পূরণ করবে।শুরুতে অফ লাইনে আমার মোটামুটি সেল ভালোই ছিলো।আমার ছোটদের ড্রেস তৈরী করতে ভীষণ ভালো লাগে।যখন আমি আমার মেয়ের জন্য ড্রেস তৈরী করে পরিয়ে অন্য বাচ্চা ও তাদের মায়ের সামনে যেতাম যারাই দেখতো সেই ড্রেসের প্রশংসা করতো এবং অর্ডার করতো।যেকোনো অনুষ্ঠানে গেলেও আমার ড্রেসের সকলে প্রশংসা করতো জানতে চাইতো কোথায় থেকে কিনেছি।তখন সামনে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা পেতাম।

ডিজাইনিং পেশাটি বেছে নেয়া এবং শুরুতে সবার সাপোর্ট পাওয়া অনেক কঠিন ছিলো।তারপরও আমি থেমে যাইনি আমার ভিতরে অদম্য ইচ্ছাশক্তি আজ এ পযর্ন্ত নিয়ে এসেছে আলহামদুলিল্লাহ্।আমি বিশ্বাস করি একজন মানুষের মধ্যে ভালো কিছু করার অদম্য ইচ্ছাশক্তি থাকলে তাকে কোনো বাধা আটকাতে পারে না।তার সফলতা আসবেই ইনশাআল্লাহ।আমি আমার জীবনে তার প্রমান পেয়েছি।পাশাপাশি সততা ও কঠোর পরিশ্রমের সাথে থাকতে পারলে জীবনে নিজের অবস্থান শক্ত করা অসম্ভব কিছু না।বতর্মানে আমার ডিজাইনার বেবী ড্রেস, সালাতের হিজাব ,খিমার ,ম‍্যাচিং ড্রেস ও হ‍্যান্ড পেইন্ট ড্রেস সারাদেশসহ দেশের বাহিরেও যাচ্ছে এবং এর মধ্যেই প্রায় সবাই রিপিট কাস্টমার হচ্ছে।অফলাইন, পেজসহ উই থেকে আলহামদুলিল্লাহ্ অনেক অর্ডার পাচ্ছি।উইতে ৯ মাসে আমি আড়াই লক্ষ্য টাকা সেল করছি।এছাড়া একজন পরিপূর্ণ উদ‍্যোক্তা হওয়ার যে শিক্ষা তা উই প্লাটফর্ম থেকে শিখতে পারছি।উইকে পেয়েছি বলেই আজ নিজের স্বপ্নকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারছি আর এসব কিছুর জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই শ্রদ্ধেও Razib Ahmed ও উইয়ের জননী অত্যন্ত ভালো মনের একজন মানুষ নাসিমা আক্তার নিশা আপুকে।

আমার ভবিষ্যৎ ইচ্ছা আমার ডিজাইনের কাজ একটি ব্র‍্যান্ড হিসেবে দেশসহ দেশের বাহিরে সবাই এক নামে চিনবে।বর্তমানে আমার প্রডাক্টশন হাইজে কর্মী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে এবং ইনশাআল্লাহ এর পরিধি বাড়তে থাকবে।আমি যেন আমার সকল কর্মীদের সুন্দরভাবে সুযোগ-সুবিধা ও ট্রেনিং এর মাধ্যমে তাদের আত্নকর্মশীল হিসেবে তৈরী করতে পারি।

এই ম‍্যাগাজিনের এই মহৎ উদ‍্যোগকে স্বাগত জানাই।আমাদের নারী উদ‍্যোক্তাদের সামনে এগিয়ে যেতে এই ম‍্যাগাজিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এবং এই ধারাবাহিকতা চলতে থাকে।আমি এই ম‍্যাগাজিনের সকলের সফলতা কামনা করছি।
শেষে একজনকে কৃতজ্ঞতা না জানালেই নয় তিনি হলেন আমার হাজবেন্ড যার সাপোর্ট অর্জন করতে পেরেছি আলহামদুলিল্লাহ্ এবং সে আমাকে সাপোর্ট না করলে হয়তো এগিয়ে যেতে পারতাম না।

page link- https://www.facebook.com/Mannota-Babies-fashion-108033677526871/


S.Z.PRINCE

facebookhttps://web.facebook.com/S.Z.PRINCE

Contact no. 01684722205 (WhatsApp)

Magazine page: https://web.facebook.com/TSMEntrepreneursMagazine

আপনিও আপনার গল্প শেয়ার করতে চাইলে আমাকে ম্যাসেজ করতে পারেন।