Contact us to get featured in Entrepreneurs Magazine TSM | Call: 01684722205

আত্মবিশ্বাসই পারে লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে।ফয়জুন্নেছা আইভি

নাম : ফয়জুন্নেছা আইভি

আমার জন্মস্হান খুলনা। খুলনাতেই আমার লেখাপড়া শেষ করে ঢাকায় ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে MBA করি। পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পুষ্টি বিষয়ে পড়াশুনা করতেছি।

আমার প্রথম কর্মজীবন শুরু ডাচ বাংলা ব‍্যাংকে চাকরির মাধ্যমে। চাকরির পাশাপাশি আমার নিজের ছোট একটা ব‍্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে। আমার নিজের গার্মেন্টস একসোসরিস কারখানা আছে। আল্লাহ্ রহমতে কিছু লোকের কর্মসংস্থানের ব‍্যবস্হা করতে পেরেছি।

উই তে কিভাবে আসলাম আমি নিজেও সেটা জানিনা কে আমাকে এখানে এড করে দেয়।: উইতে জয়েন করেছি আগষ্ট,২০২০ এ।

প্রথম প্রথম অফিসে কাজে ফাঁকে ফাঁকে সবার লেখা পড়তাম। আমার বেশ ভালো লাগলো। আমি নিজেও একজন কর্মজীবি নারী।

কেনো উই বিজনেস শুরু করলাম: করোনাতে বেশি সময় বাড়িতেই অলস ভাবে কাটানো হয়েছে, হঠাৎ যেকোন একজনের ইনভাইটেশনে এখানে জয়েন করি।
রাজিব স‍্যার, নিশা আপু, কাকলী আপু, নিগার আপু, আরো অনেক আপুদের লেখা। অন্য আপুদের সবার পোস্ট কাজ দেখে অনেক বেশি অনুপ্রাণিত হয়ে উই তে আমার উদ্যোগক্তা হবার যাত্রা শুরু করি।

যে অভিজ্ঞতা হলো : আলহামদুলিল্লাহ্ জীবনের সব থেকে অনেক বড় অভিজ্ঞতা এখান থেকে অর্জন করেছি। প্রথমত স‍্যারের কথা এবং সেইভাবে প্রতিটি বিষয়ে বিচক্ষণতার সাথে কাজ করা এবং আশানুরুপ ফল পাওয়া। পাশাপাপাশি একজন নারী হয়ে নিশা আপুর উৎসাহে আমি ও বিশ্বাস করতে শিখেছি আমি ও পারবো চেষ্টা করলে।

উদ্যোগক্তা হিসেবে অনেক দেশীয় পণ্য নিয়ে আমি কাজ করছি, ছাতু যা দেশের প্রত‍্যন্ত অঞ্চলের খাবার কিন্তু স্বাদ এবং পুষ্টিতে সেরা আলহামদুলিল্লাহ্ উই এর মাধ্যমে তা আমি অনেকের কাছে প‍ৌছাতে পেরেছি।

খেজুরের চিনি উই তে আমার দেখা আমি এই চিনি নিয়ে কাজ করছি।
পাশাপাশি হোমমেড বেবী ফুড, বাটার, ঢাকাই পনির, ড্রাই ফ্রুটস, নারিকেল চিড়া নিয়ে আমার কাজ।

বতর্মান সেল আপডেট : 2020 সালের সেম্পবর থেকে ডিসেম্বর পযর্ন্ত দুই লক্ষ একানব্বই হাজার দুইশত তেতাল্লিশ টাকা।

ভবিষ্যত পরিকল্পনা : আজীবন উই এর কাছে কৃতজ্ঞ এবং সবসময়ই উই এর সাথে পথ চলতে চাই ধন্যবাদ।

https://www.facebook.com/Maisarahs-Mummys-Baby-Food-572901176721706/

S.Z.PRINCE

facebookhttps://web.facebook.com/S.Z.PRINCE

WhatsApp no. 01684722205

Magazine page: https://web.facebook.com/TSMEntrepreneursMagazine

আপনিও আপনার গল্প শেয়ার করতে চাইলে আমাকে ম্যাসেজ করতে পারেন।