Contact us to get featured in Entrepreneurs Magazine TSM | Call: 01684722205

“স্বপ্ন সারথে inoventic fashion “Sharmin Sayed

“পরিশ্রম, সততা, নিষ্ঠা আর মেধাকে পুঁজি করে স্বপ্নের সারথে এগিয়ে নিয়ে যাবো inoventic fashion কে।”

ছোট বেলা থেকেই স্বপ্ন দেখতাম ব্যাংকার হবো।কিন্তু সময়, অবস্থা সে সুযোগ টা কখনোই তৈরি করে দেয়নি।এটা অবশ্য আগে মনে মতো,এখন বুঝি সময়,সুযোগ  তৈরি করে নিতে হয়।

বিজনেস নিয়ে কখনো স্বপ্ন তো দূর চিন্তাও করিনি।এক প্রকার প্রয়োজন থেকেই শুরু হয়েছিল।তার উপর আত্মপরিচয় সংকটেও ভুগছিলাম। আত্মপরিচয় প্রতিষ্ঠা এবং  প্রয়োজনকে স্বপ্নের সারথি করে নিলাম।

আমি শারমিন সাঈদ,  জন্ম নেত্রকোনা জেলায় কিন্তু শিক্ষা জীবনের হাতেখড়ি আর আমার বেড়ে উঠা মুন্সিগঞ্জ জেলায়। আমার কাছে একজন জন্মদাত্রী মা আর একজন দাত্রীমা🥰 এর মতো।ভালো লাগা, ভালোবাসাটা পালিত মায়ের জন্যই যেনো বেশি কাজ করে।আমি দু জেলার বলতেই গর্ববোধ করি।

বিয়ের পর হাসবেন্ড এবং মায়ের সাপোর্টে শুরু করি বিজনেস। অফলাইনে বিজনেস তেমন রানিং করাতে পারছিলাম না। লস লস আর লস।নিজের বিজনেস পেজ থাকার পরেও কোনো সেল নেই।অনলাইন বিজনেস এর উপর থেকে ভরসাই উঠে গিয়েছিল। তারপর বেবি হবার পর যখন চিন্তা করলাম আবারও নতুন করে  শুরু করবো তখন আমি মুন্সিগঞ্জে থাকার কারনে সমস্যাটা আরো বেড়ে গেলো। কারন পণ্যের সহজলভ্যতা আর কাচামালের প্রাপ্যতা দুটোরই অভাব সাথে প্রকৃতির নির্মম অত্যাচার।

inoventic fashion আবার নতুন করে  শুরুর সাথে সাথেই পুরোদস্তুর লকডাউন সারাদেশে ।জেলা শহর মুন্সিগঞ্জ ঝুঁকির সবোর্চ্চ সীমায়।আবারো শুরুর যাত্রা যখন থেমে যাচ্ছিল তখন দেখা পেলাম  দেশি পণ্যের উদ্যোক্তাদের নিয়ে একটা গ্রুপ Women & e-commerce forum বা WE। যদিও উই কোন সেল গ্রুপ নয়, শুধুমাত্র পার্সোনাল ব্রান্ডিং দিয়েই চলতে দেখছিলাম। এমন পরিস্থিতিতেও সকল উদ্যোক্তাদের উদ্যোগের চাকা সফলতার সাথে চলতে দেখেছি।আমার উদ্যোগও তার বাইরে নয়।দেশীয় পণ্য নিয়ে কাজ করছি যখন, তখন এটা আমার জন্য বেস্ট প্লাটফর্ম। কিন্তু অনেক কিছু শিখতে হয়েছে আমাকে নতুন করে। উই এর কল্যাণে আমি হাইটেক পার্ক, কোর্সেরার মতো ইন্টারন্যাশনাল কোর্সও করতে পেরেছি তাও ফ্রিতে।আমার উদ্যাোক্তা জীবনে কতটা গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলেছে তা বর্তমান inoventic fashion এর পথচলাই বলে দেয়। তার জন্য  উই এর এডভাইজার রাজিব আহমেদ স্যার ও প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা আপুর কাছে কৃতজ্ঞ।স্যার যেদিন থেকে বলেছেন পারসোনাল ব্রান্ডিং করেন এবং লেগে থেকে পরিশ্রমে সফলতা আসে।সেদিন থেকে এই লক্ষ্য রেখেই কাজ করেছি।

কোনো বুস্টিং ছাড়াই পেজের অর্গানিক লাইক, ফলোয়ার বেড়েছে এমনকি মুচড়ে যাওয়া পেজে এখন কেনাবেচা হচ্ছে ২৪ ঘন্টা।  উইয়ে পার্সোনাল ব্রান্ডিং এর মাধ্যমেই inoventic fashion  এর সফল পথচলা শুরু ,আলহামদুলিল্লাহ।

inoventic fashion  এ ব্লকের শাড়ি, তাঁতের থ্রী পিস,স্লাবকটনের থ্রী পিস,বাটিকের থ্রী পিস,হ্যান্ডলুম তাঁতের শাড়ি, সুতি শাড়ি এবং আমার ডিজাইনার কুর্তি পাওয়া যায়।

এর পরিচালনার পুরো দায়িত্ব আমার।কিন্তু আমার হাসবেন্ড রফিকুল ইসলাম সুমন আমার উদ্যোগে অনেকটাই সাহায্য করেন।যে কোন সিদ্ধান্তে,পণ্য সোর্সিং, পরামর্শ দিয়ে থাকেন।মাঝে মাঝে পণ্য ডেলিভারির কাজও উনিই করেন।তবে কাস্টমার হ্যান্ডেলিং এবং কুর্তি ডিজাইনের সকল কার্যক্রমের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আমি নিজেই নিই।

inoventic fashion আমার আর একটা সন্তান। ছোট্ট পায়ে এগিয়ে যাচ্ছে ধীরে ধীরে যদিও পথটা মসৃণ ছিলো না,এখনো নয়। একজন নারীকে ঘরের বাইরে কাজ করতে হলে অনেক ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়। প্রথমেই বাধা আসে পরিবার থেকে। এরপর সমাজ আর রাষ্ট্র তো আছেই। আমার বেলাতেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। নানা ধরনের বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে আমাকে। শুরুতে আমাকে বলা হতো তুমি পারবা না, এসব করে কোনো লাভ নেই, অনেকের জীবন এভাবে নষ্ট হয়েছে … আরও অনেক কিছু। কিন্তু আমি কখনো আত্মবিশ্বাস হারাইনি। লক্ষ্য থেকে সরে যাইনি। আত্মবিশ্বাসী ছিলাম যে, আমি কাজে সফল হবোই।আমার আজকের সফলতা inoventic fashion কে দাঁড় করাতে পেরেছি।

আমি শারমিন সাঈদ আমার উদ্যোগ inoventic fashion নিয়ে এগিয়ে যাবো ইনশাআল্লাহ।  দেশের ৬৪ জেলার মানুষ দেশীয় পণ্যের উদ্যোক্তা হিসেবে মুন্সিগঞ্জের শারমিন সাঈদকে চিনবে সেই আশায় স্বপ্ন দেখি inoventic fashion কে সাথে নিয়ে হাঁটতে চাই।

শারমিন সাঈদ

মুন্সিগঞ্জ থেকে

www.facebook.com/inoventicfashion

S.Z.PRINCE

facebookhttps://web.facebook.com/S.Z.PRINCE

Contact no. 01684722205