Contact us to get featured in Entrepreneurs Magazine TSM | Call: 01684722205

গ্রামের সাধারণ মেয়ে থেকে দেশীয় পন্যের উদ্যোক্তা “খাদিরাণী “|Mokta Akter

নাম : মুক্তা

ঠিকানা : বিবির বাজার, কুমিল্লা।

উদ্যোক্তা হওয়ার সূচনা ঘটে ২রা ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে। তার আগেও ইচ্ছে ছিলো যে নিজে কিছু একটা করি কিন্তু সুযোগ সাহস কোনটা ই হয়নি। উইয়ের মাধ্যমে এবং রাজীব আহমেদ স্যাররের পরামর্শ এবং দেশীয় পণ্য নিজ জেলার খাদি নিয়ে কাজ করার ইচ্ছে হয়।

নিজে কিছু করার ইচ্ছে টা সবার থাকে আমার ও আছে।  আমি চাইছিলাম আত্মনির্ভরশীল হতে সেই জন্য উদ্যোক্তা হওয়ার প্রচেষ্টা।  আর উদ্যোক্তা হলে নিজের বস নিজেই হওয়া যায় সেটা ছিলো ফাস্ট কারণ। 

আমি যখন উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য খাদি কাপড় সিলেক্ট করি তখন কুমিল্লার খাদির অবস্থা প্রায় মরা মরা  অবস্থায় ছিল। পিওর কুমিল্লার খাদি কালেক্ট করা গ্রাম থেকে যাওয়া আসা তাও করোনা কালীন সময়।

অন্য দিকে আমি গ্রামে থাকি ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকা। নেট সমস্যা ছিলো অন্যতম সমস্যা । পারিবারিক অনেক সমস্যা ছিলো অনেক কষ্ট করে আজকের জায়গা তে আসতে হয়েছে। 

আমি আমার উদ্যোক্তা হওয়ার সময়কাল ধরি ৯ মাস এই ৯ মাসে আমি অনেক অনেক কিছু শিখেছি বিশেষ করে নিজ জেলা পণ্য কুমিল্লার বিখ্যাত খাদি নিয়ে জেনেছি খাদির ইতিহাস, ঐতিহ্য,  বর্তমান, ভবিষ্যৎ ইত্যাদি।  খাদি কাপড় নিয়ে অনেক ভালো ধারণা হয়েছে। ৯ মাসের অভিজ্ঞা হলো যে কোন ভালো কাজে লক্ষ্য ঠিক করে এগিয়ে যেতে হবে। যতক্ষণ সফলতা না আসে ততক্ষণ লেগে থাকতে হবে।  পরিশ্রমী ত্যাগী হলে সফলতা আসবেই। এই বিশ্বাস আর শিক্ষা পেয়েছি আমার পথনির্দেশক রাজীব আহমেদ স্যার থেকে।

খাদি এখন পর্যন্ত আমার মোট সেল ১২ লাখ  টাকা।  করোনা কালীন সময় আমার ১লাখ টাকা সেল হয়। করোনার মধ্যে ডেলিভারি শুধু হলে আমার ৫ লাখ হয়ে যায় ২/৩ মাসে। করোনার মধ্যে কুমিল্লা যখন রেড জোনে তখন ও ডেলিভারি দিয়েছি প্রতিদিন ১৫/২০ টা প্যাকেট এবং ২০০/৩০০ গজ খাদি কাপড় পাঞ্জাবী সেল করেছি। আলহামদুলিল্লাহ  এখনো সেল হচ্ছে। 

খাদিরাণী বা আমার উদ্যোগের মূল লক্ষ্য খাদির কোয়ালিটি ঠিক রেখে সারা বিশ্বে খাদি সুনাম ছড়িয়ে পরবে। খাদির বিভিন্ন আধুনিক ডিজাইনের কুর্তি, শাড়ি, পাঞ্জাবী, গাউন, ইত্যাদি নিয়ে খাদিতে ফিউশন করা। এবং অবশ্যই যখন আমার শো রুম দেয়ার সামর্থ্য থাকবে তখন ইনশাআল্লাহ আমার খাদিরাণীর শো রুম থাকবে।

“খাদি মানে ঐতিহ্য, খাদি মানে আভিজাত্য “

আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমার গল্প এবং আনন্দ গুলো শেয়ার করার সুযোগ পেয়েছি এবং সাধুবাদ জানাচ্ছি এই উদ্যোগ কে। কারন এই প্রকাশনার জন্য ই নতুন নতুন উদ্যোক্তা রা ভালো কিছু করতে আগ্রহী হবে এবং নতুন কিছু শিখতে পারবে।

S.Z.PRINCE

facebookhttps://web.facebook.com/S.Z.PRINCE

WhatsApp no. 01684722205

Magazine page: https://web.facebook.com/TSMEntrepreneursMagazine

আপনিও আপনার গল্প শেয়ার করতে চাইলে আমাকে মেসেজ করতে পারেন।