Contact us to get featured in Entrepreneurs Magazine TSM | Call: 01684722205

স্বনির্ভর জীবন সম্মানের, আর্থিকভাবে সচ্ছল হোক সকল নারী|Roksana Akhtar

আমি রোকসানা আকতার।
আমার উদ্যোগ,আমার কাজ দিয়ে পরিচিতি গড়তে চাই তাই আমার উদ্যোগ দিয়েই শুরু করি। মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় একটি খাবার চিনি, কিন্তু এখন মানুষ অনেক স্বাস্থ্যসচেতন, মেশিনে রিফাইন্ড করা সাদা চিনি শরীরের জন্য অনেক ক্ষতিকর সবাই কমবেশি অবগত।

তাই বলে মিষ্টি খাওয়া তো বাদ দেয়া যায় না, মানুষ চায় ভালো খেতে এই চিন্তা থেকেই আমার উদ্যোগ হাতে বানানো আখের রসের ব্রাউন চিনি। যা স্বাস্থ্যসম্মত ও প্রাকৃতিক।

পড়াশুনা শেষ করেছি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৩ তে।বর্তমানে এমফিল গবেষক হিসেবে আছি, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং পাশাপাশি  উদ্যোক্তা পথে নাম লিখিয়েছি।

পড়াশুনা শেষ করার কিছু দিন পর ফ্রি-ল্যান্সার হিসেবে কাজ শুরু করেছিলাম একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে। এরপর বিয়ে পর্ব সেরে একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে প্রায় দেড় বছরের একটি প্রজেক্টে যুক্ত হই। সফলতার সাথে সে পর্ব শেষ করে একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে যোগদান করি ঢাকায়। এর মাঝে একটা ভালো চাকুরীর সুযোগ মিস করি যা আসলে ঠিক  করিনি এজন্যও বেশ খারাপ লাগতো।

হাজবেন্ডের চাকুরী সূত্রে ঢাকা ছেড়ে চলে আসি ত্রিশাল,ময়মনসিংহ এ। তখন নতুন নতুন সংসারের টানে ছেড়ে আসা ক্যারিয়ার পরিবর্তিতে সবমিলিয়ে একটা কষ্টকর অনুভূতি তৈরি হয় মনে। গত প্রায় চার বছর আমার জীবনে আমি অনেক কিছু দেখেছি, দেখেছি মানুষের পদোন্নতি, মানুষের মানসিকতার অবনতি।

এই জায়গায় এসে হতাশা নামক শব্দটা আমাকে চারপাশ থেকে ঘিরে ধরতে থাকে। গতিময় জীবন ছেড়ে হঠাৎ স্থিরতা কোন ভাবেই মন থেকে মেনে নিতে পারিনি। কিভাবে হতাশা থেকে পরিত্রাণ পাবো সবসময় সেই পথ খুঁজতে থাকি।

সময়ের সাথে, বাস্তবতার সাথে স্বপ্ন এদিক সেদিক হয়েছে কিন্তু কিছু একটা করতে হবে, করতে চাই এই চিন্তাকে মন থেকে মুছে ফেলতে পারিনি এক মুহূর্তের জন্যও। কারণ একটা বিষয় সত্য যে কর্মমুখর জীবন সুন্দর হয়।

যেহেতু মনের মত কোন কাজ পাচ্ছিলাম না তাই চেষ্টা করতে থাকি সব ভুলে সংসার ও সন্তানে মনোনিবেশ করে ভালো থাকার। কিন্তু যতই সে চেষ্টা করি না কেন মনের ভিতরের ইচ্ছেটাকে তো শেষ করে ফেলা যায় না। আবার অার্থিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়া খুব দরকার এটাও অনুভব করি। চাকুরী করা মানুষ মাস শেষে যে উপার্জন করে তা বন্ধ হয়ে গেলে কিরকম  কষ্ট তা যে ছেড়েছে সে নিশ্চই বুঝবে।

এদিকে সন্তান ছোট লালন পালনের, দেখভালের পুরো দায়িত্ব আমার কাঁধে, মনে হচ্ছিলো ডুবে যাচ্ছি, হারিয়ে ফেলছি নিজেকে। ভীষণ রকম অবসাদে আচ্ছন্ন হতে থাকি, সন্তানের কথা ভেবেই মন কে শক্ত করি এর থেকে বের হতে হবে এছাড়া কোন উপায় নেই।

যেহেতু সারাদিন স্মার্ট ফোন হাতেই থাকে তাই অনলাইনে অনেক রকম কাজ চোখে পড়তো। ধীরে ধীরে মনে হলো তাহলে অনলাইনে কাজ শুরু করি কিন্তু অনলাইন প্লাটফর্মে আমি কিভাবে কাজ করবো কোন ভাবেই যখন বুঝতে পাচ্ছিলাম না ঠিক তখনই  Women and e- Commerce Forum (WE) আশির্বাদ হয়ে জীবনে আসে। আমার এই অনলাইনে উদ্যোগ নিয়ে চলার পথের সব থেকে বড় সাপোর্ট হলো ‘WE’।

কার মাধ্যমে যুক্ত হই মনে নেই, কোন গ্রুপে জয়েন হয়ে আগে গ্রুপটা ঘুরে আসি, উইকে পেয়েও তাই করলাম।

আমার মনে হলো আমি যেনো নতুন করে জীবনে আর একটা সুযোগ পেলাম আমার কিছু করতে চাওয়ার স্বপ্ন কে সত্যি করার। আমার যেহেতু লিখতে ও পড়তে ভালো লাগে তাই আমার স্বপ্নের পথে এগিয়ে যেতে উই হচ্ছে বেস্ট প্লাটফর্ম।

এখান থেকে প্রতিনিয়ত শিখে যাচ্ছি। ‘WE’ এর জননী শ্রদ্ধেয়  নাসিমা আক্তার নিশা আপু আমাদের মত নারীদের জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন।আর রাজিব স্যার, কবির সাকিব ভাইয়া আমাদের দিচ্ছেন সঠিক পথনির্দেশনা।

মনের ভীতরের সাহসকে বাইরে প্রকাশ করতে  #WE থেকে অনুপ্রাণীত হয়ে আগস্ট ২০২০ এ #মাটিরফুল #অর্গানিক নামে একটি পেজ খুলি।

উদ্যোগ শুরু করলাম আখের রস থেকে হাতে তৈরি ব্রাউন চিনি নিয়ে। অনলাইনে উদ্যোগ শুরু করবো এই ঘোষনা দিতেই কাছের অনেক শুভাকাঙ্খী ব্রাউন চিনির কাস্টমার হয়ে উৎসাহ, অনুপ্রেরণা দিলো, সাহস পেলাম এগিয়ে যাবার।

ব্রাউন চিনি প্রাকৃতিক। পাট পণ্য দিয়ে ব্রাউন চিনির প্যাকেজিং করেছি, সেখানেও দেশীয় ও পরিবেশবান্ধব ব্যাপারটি ভাবনায় রেখেছিলাম।

মাটির ফুল অর্গানিক পেজ এর মাধ্যমে আমি আমার উদ্যোগ নিয়ে প্রায় তিন মাসের বেশি সময় ধরে কাজ করে চলেছি।

https://www.facebook.com/akhroksana200/https://www.facebook.com/akhroksana200/

আমি মনে করি উদ্যোগ শুধু আমার নিজের কাজ নয় কিংবা শুধুমাত্র কাজের খাতিরে কাজ করা নয়, আমার এই কাজটি দিয়ে যেনো আমি সমাজের মানুষের কিছুটা হলেও উপকারে আসতে পারি সে চিন্তা সবসময় করি।

আমি যখন প্রান্তিক চাষী বা কৃষকের  থেকে পণ্যটি ক্রয় করছি তখন একটু হলেও বেশি অর্থের বিনিময়ে নিয়ে আসি তাতে তারাও কিন্তু লাভবান হচ্ছে অল্প হলেও। আর যারা ভালো খেতে চায় তাদের জন্য চেষ্টা করছি স্বাস্থসম্মত প্রাকৃতিক ব্রাউন চিনি দোড়গোড়ায় পৌছে দিতে।

এত অল্প সময়ে ব্রাউন চিনির এত ক্রেতা পেয়েছি আলহামদুলিল্লাহ, এর মধ্যে অনেকজন রিপিট কাস্টমারও হয়েছেন। উদ্যোগে আরো একটি নতুন সংযোজন হতে যাচ্ছে তুলশিমালা চাল।

যদিও উদ্যোক্তা জীবন খুব কঠিন এবং একজন নারীর জন্য একটু বেশীই কঠিন বলে আমি মনে করি। শুরু থেকেই আমার উদ্যোগে আমার পরিবার, আমার হাজবেন্ড কে পাশে পেয়েছি। আমার ইচ্ছের প্রতি তাদের থেকে পাওয়া সাপোর্ট আমার পথচলা কিছুটা হলেও মসৃণ করবে বলে আশাকরি। কারণ একটি মেয়ের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে সবচেয়ে বেশি পরিবারের আন্তরিক সাপোর্ট প্রয়োজন হয়।

আর সত্যিকার অর্থে অনেক শুভাকাঙ্খী পেয়েছি যারা কখন আমার পণ্যের ক্রেতা হয়ে, কখন মানসিক সাপোর্ট দিয়ে আমার কাজকে সমৃদ্ধ করতে পাশে রয়েছেন। ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা সকলের প্রতি।

কে কি বলবে তা নিয়ে সংশয় যখনই মনে দানা বেঁধেছে একটা কথাই শুধু মাথায় এসেছে খারাপ দিনগুলোতে যাদের কোন দিন পাইনি বা যাদের কখন বলাও যাবে না নিজের কষ্টের কথা, তারা আমার উদ্যোগ নিয়ে কি ভাবলো এ নিয়ে এক মিনিট সময় ব্যয় করা মানে তো আমারই ক্ষতি।

আমি মনে করি যেকোন কাজই সম্মানের যারা কাজকে ছোট বা বড় হিসেবে বিবেচনা করে তারা শিক্ষিত হয়েও অশিক্ষিত।

আমার স্বপ্ন এই প্রাকৃতিক দেশি খাদ্য আখের রস থেকে হাতে তৈরি ব্রাউন চিনিকে আমি আমার পেজ মাটির ফুল অর্গানিকের মাধ্যমে বাংলাদেশের সব জেলার মানুষের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে চাই, পৌছে দিতে চাই।মানুষ চিনবে, জানবে।  মানুষকে ভালো খেতে উৎসাহিত করতে চাই।

দেশী পণ্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই, আমি সমৃদ্ধ হলে সমৃদ্ধ হবে আমার প্রিয় বাংলাদেশ। আর বাংলাদেশ মানেই তো আমরা।

ধন্যবাদ জানাই Entrepreneurs Magazine TSM কে আমাদের মত উদ্যোক্তাদের কথাগুলো তুলে ধরবার জন্য।

রোকসানা আকতার
স্বত্তাধিকারী -মাটিরফুল অর্গানিক
ত্রিশাল,ময়মনসিংহ থেকে
https://www.facebook.com/roksana.akhtar.9

https://www.facebook.com/akhroksana200/

…………………………………………………………………………

S.Z.PRINCE

facebookhttps://web.facebook.com/S.Z.PRINCE

WhatsApp no. 01684722205

Magazine page: https://web.facebook.com/TSMEntrepreneursMagazine

আপনিও আপনার গল্প শেয়ার করতে চাইলে আমাকে মেসেজ করতে পারেন।